করোনায় আক্রান্ত ছেলে ও মেয়েকে হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ার সময় হাতে কুরআন তুলে দিলেন মা

প্রকাশিত: ৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৯, ২০২০

করোনায় আক্রান্ত ছেলে ও মেয়েকে হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ার সময় হাতে কুরআন তুলে দিলেন মা

করোনা মহামারীর আতঙ্কে দিশেহারা ভারতসহ সারা বিশ্ব। দিন দিন বেড়ে চলেছে আক্রান্তের সঙ্গে মৃত্যুর সংখ্যাও । পৃথিবীর সব চাইতে সম্পদশিল, শক্তিশালী দেশ গুলো যারা এত দিন ধরে হাজার হাজার পরমাণু বোমা বানিয়ে রেখেছে মানুষ কে ধংস করার জন্য। আর আজ সামান্য একটা ভাইরাস যা খালি চোখে দেখা যায়না সেই ভাইরাস সারা পৃথিবীর স্বাভাবিক জনজীবন কে ধংস করে দিতে শুরু করেছে।

বিশ্বের ধনী দেশ গুলির মধ্যে ইতালি অন্যতম। কিন্তু শহরে ধনী ব্যক্তি গুলো তাদের টাকা পয়সা রাস্তায় ফেলে দিয়েছে। কারণ তাদের সেই সম্পদ ভোগ করার লোক গুলোই দুনিয়া থেকে চলে গেছে। এমনি এই ভাইরাস যদি ছেলে কে হয়ে যায় তো মা বাবা কাছে যাই না, মা বাবা কে যদি হয়ে যায় তো ছেলে মেয়ে কাছে যায় না। এই রকম হাজার হাজার দৃশ্য আমরা দেখেছি যেখানে করুন ভাবে কেঁদে চলেছে মা বাবা অথচ কাছে যেতে পারে না।

আজ থেকে ১৪৫০ বছর আগে হযরত মোহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলে গেছেন যে কিয়ামতের দিন কেও কাউকে চিনবে না, মা ছেলের এত ভালোবাসা তার সত্ত্বেও মা ছেলেকে চিনবে না, ছেলে মা কে চিনবে না। ওনার বলা কথা আজকেই বাস্তবে পরিণত হয়ে গেলো আজকে পৃথিবীতেই সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যাচ্ছে সামান্য একটা ভাইরাসে কারণে। আল্লাহ কি কিয়ামতের ভয়াবহতা দেখানোর জন্য এই ভাইরাস পাঠিয়েছে অথবা আমাদের পেপার মাত্রা পেরিয়ে গেছিলো যার জন্য পাঠিয়েছে। তবে আজকে এই করুন দশার মধ্যে উঠে এলো এক আল্লাহ ভীরুতার পরিচয়।

ঘটনা পাকিস্তানের লাহর প্রদেশের, এক ছেলে মেয়ের করোনা হওয়ায় ছেলে মেয়ের সাথে হাসপাতাল যেতে পারলো না মা। অঝর নয়নে কাঁদতে কাঁদতে ছেলে মেয়ের হাতে কোরান মাজিদ তুলে দিলেন মা। যেনো সব সময় হাসপাতালে পড়তে পারে ছেলে মেয়ে আর আল্লাহ কে সরন করতে পারে।

Sharing is caring!