সিদ্ধিরগঞ্জে ত্রাণ দেয়া নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, পুলিশের ফাঁকা গুলি

প্রকাশিত: ৫:২১ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০২০

সিদ্ধিরগঞ্জে ত্রাণ দেয়া নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, পুলিশের ফাঁকা গুলি

সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইলের এসওরোড এলাকায় ত্রাণ দেয়া নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১১ আহত হয়েছে।

পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শর্টগানের ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া ও অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ দেয়া নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকাল নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির সমর্থক তেল ব্যবসায়ী আশ্রাফ উদ্দিন ও একই ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মণ্ডলের লোকজনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়।

এ ঘটনার জের ধরে সন্ধ্যায় উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে ধাওয়া পাল্টাধাওয়া ও সংঘের্ষর ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের সময় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শর্টগানের ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১১ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত কয়েকজনকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে আশ্রাফ উদ্দিন বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সিরাজ মণ্ডলের লোকজন আমাদের উপর হামলা চালিয়েছে। হামলায় আমাদের তিনজন আহত হয়েছে।

অপরদিকে সিরাজুল ইসলাম মণ্ডল বলেন, আমার লোকজন দুস্থদের ত্রাণ বিতরণ করতে গেলে আশ্রাফ উদ্দিনের সঙ্গে কাটাকাটি হয়। পরে তার লোকজন আমার লোকজনের উপর হামলা করে। এতে আমার ৮ জন লোক আহত হয়েছে। এদের মধ্যে গুরুতর আহত চারজনকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মো. কামরুল ফারুক জানান, ত্রাণ দেয়া নিয়ে কাউন্সলর মতিউর রহমান মতির সমর্থক আশরাফ উদ্দিন ও সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মণ্ডলের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টধাওয়া হয়েছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দুই রাউন্ড শটর্গানে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেছে। তবে এতে কেউ আহত হননি।

তথ্য ও সূত্র ঃ যুগান্তর

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ