খাগড়াছড়ির ৭১ কৃষককে ২ কোটি ১০ লাখ টাকার কৃষি ঋণ দিল ইউসিবি

প্রকাশিত: ১২:৫৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

খাগড়াছড়ির ৭১ কৃষককে ২ কোটি ১০ লাখ টাকার কৃষি ঋণ দিল ইউসিবি

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ- বাংলাদেশের কৃষি খাতের উন্নয়নে অবদান রাখতে কৃষকদের জন্য কৃষি ঋণ নিয়ে এলো ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি (ইউসিবি)। প্রাথমিক ভাবে কৃষকের মুখে হাসি ফুটাতে আজ মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর মারমা উন্নয়ন সাংসদ কমিনিউটি সেন্টারে খাগড়াছড়ির ৭১ কৃষকের হাতে মোট ২ কোটি ১০ লাখ টাকার ঋণ তুলে দেয় ইউসিবি। ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মং সার্কেল চিফ (রাজা) সাচিংপ্রু চৌধুরী, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি-এর অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ কাদরী, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাবিল ‍মুস্তাফিজুর রহমান, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক এন মুস্তাফা তারেক, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও কোম্পানি সেক্রেটারি এটিএম তাহমিদুজ্জামান এফসিএস, খাগড়াছড়ির ফলজ মালিক সমিতির সভাপতি দিবাকর চাকমাসহ ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীরা মানবসত্তার মর্যাদা ও মানব উন্নয়নের সম্ভাব্য সব মাপকাঠিতেই অতি দরিদ্র বা অতি প্রান্তিকবহিঃস্থ মানুষ হলেও তাদের জীবন ধারণের একমাত্র ভরসা কৃষি। এমন অবস্থায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী কৃষকদের সহায়তা করতেই এই প্রকল্প হাতে নিয়েছে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি।

সহজ শর্তে জানামানত বিহীন ঋণ পেয়ে বিজয় বিকাশ চাকমা বলেন, “জামানতবিহীন ঋণ পাবো কোন দিন কল্পনাই করতে পারি নাই। আমি সত্যিই খুবই আনন্দিত। এই ঋণ আমার মসলা চাষের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তাছাড়া এই ঋণ পেতে আমাকে কোন ধরণে ভোগান্তির শিকার হতে হয়নি। তার জন্য ইউসিবি ব্যাংকে আঃন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।”

অনুষ্ঠানে উপস্থিত খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মং সার্কেল চিফ (রাজা) সাচিংপ্রু চৌধুরী বলেন, “এখানে চাষিরা মনে করে প্রাইভেট ব্যাংক মানে অনেক কিছু কিন্তু এই ধারণা পাল্টে দিল ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি। অনেক সময় আমাদের চাষিরা বিভিন্ন ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার জন্য বারবার চেষ্টা করেও তারা নানা জটিলতার কারণে ঋণ গ্রহণ করতে পারে না। যার ফলে করোনার মাঝে কৃষকদের জীবন-যাপন আরও বেশি কঠোর হয়ে পড়ে।

এমন অবস্থায় আমাদের কৃষকদেরকে সহজশর্তে জামানতবিহীন ঋণ দিয়ে পাশে দাড়াঁনোর জন্য ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। একই সাথে এই ব্যাংকের প্রতি আমাদের অনুরোধ থাকবে আমাদের চাষিদের যেকোন সমস্যায় আপনারা পাশে দাড়াঁবেন।”

অনুষ্ঠানে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি এর অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ কাদরী বলেন, “দেশের এই সংকটের মাঝেও খাগড়াছড়ির কৃষকদের কাঁধে কাঁধ মিলাতে পেরে খুবই আনন্দিত। অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াতে দরকার ক্ষতিগ্রস্তদের যতদ্রুত সম্ভব ঋণ দেয়া। এটি পালনে আমরা দৈনিক লক্ষমাত্রা নিয়ে কাজ করছি। আমরা এই প্রথম এক সাথে ৭১ জন কৃষককে মোট ২ কোটি ১০ লাখ টাকা প্রদান করছি। যেটি আর কোথাও দেওয়া হয়নি। তাছাড়া আমরা খাগড়াছড়িতে একটি নতুন শাখা চালু করেছি।

ইউসিবি ব্যাংক আপনাদের সেবায় সবসময় পাশে থাকবে এবং যেকোন সেবাই আপনাদের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিব। করোনায় বিধস্ত অর্থনীতি পুনরূদ্ধানে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অক্ষরে অক্ষরে পালন করার চেষ্টা করে যাচ্ছে ইউসিবি ব্যাংক। তাছাড়া যেসব এলাকায় কৃষকের জন্য সংকট আর বিপর্যয়, আমরা সেই সব এলাকার কৃষকদের পাশে দাড়াঁনোর জন্য চেষ্ঠা করবো।”

১৯৮৩ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের অন্যতম প্রধান বেসরকারী বানিজ্যিক ব্যাংক ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি দেশজুড়ে বিস্তৃত শাখা নেটওর্য়াকের মাধ্যমে গ্রাহকদের সর্বোত্তম সেবা নিশ্চিত করে আসছে।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ